সর্বশেষ সংবাদ:
জগন্নাথপুরে মৃদু ভূমিকম্প অনুভূত হয় জগন্নথপুরে ডাকাতি ও মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে মাসুম আহমদের হত্যাকারীদের অতিসত্ব গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও স্ত্রী মেলানিয়া কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত ফ্রান্সে জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় আইফেল টাওয়ার! পাকিস্তান- ধর্ষণ-যৌন অপরাধের সাজা নপুংসকতা বা ফাঁসি, দাবি ইমরানের ক্যালিফোর্নিয়ার আরও ভয়ংকর দাবানল, দৈনিক আগুন ছড়াচ্ছে ২৫ মাইল! মৃত ১১ আরও এক জন নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গকে পিছন থেকে গুলি করল মার্কিন পুলিস! বিশ্বে ৪৩টি দেশের রাষ্ট্রধর্ম মধ্যে,২৮টি দেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম ! করোনাভাইরাস: প্যারিস ও মার্সেইলে ‘ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চল’ ঘোষণা করেছে ফ্রান্স !

করোনা ভাইরাস টেস্টের কিট তৈরি করেছেন বাংলাদেশের গবেষক ড. বিজন কুমার শীল৷

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীলের দাবি ‘আমাদের কিট অন্যদের চেয়ে আলাদা, ইউনিক’
তিনি বলেন করোনা ভাইরাসের র‌্যাপিড টেস্ট কিট ‘গণস্বাস্থ্য র‌্যাপিড ডট ব্লট’ আবিস্কার করেছেন ৷ এখন সাভারের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে তার গবেষণা দলে সঙ্গে রয়েছেন তিনি৷ কিট সরকারে হাতে তুলে দেয়ার আগ পর্যন্ত সেখানেই থাকবেন বলে জানান৷ ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ‘‘আজ-কালের মধ্যে কাঁচামাল এসে যাবে৷ সরকারের আন্তরিক সহায়তায় সব প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে৷ এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে এই কিট আমরা দিতে পারবো৷’’

সার্স ভাইরাস পরীক্ষার কিটের পেটেন্ট ড. বিজন কুমারের নিজের৷ ২০০৩ সালে তিনি সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল এনভায়রনমেন্ট এজেন্সিতে চাকুরি করার সময় এই কিট আবিস্কার করেন৷ ল্যাবরেটরিতে ভাইরাস তৈরি করে তা থেকেই টেস্টিং কিট তৈরি করা হয় তখন৷

Advertisement

কিভাবে এই কিট আবিষ্কার করেছেন সেই কাহিনি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘‘২০০৩ সালের সার্স ভাইরাস আর এখনকার যে কোভিড-১৯ (করোনা)-এর প্রায় ৮০ ভাগ মিল আছে৷ ওটা ছিল সার্স করোনা ভাইরাস-১ এবং এখনকারটা সার্স করোনা ভাইরাস-২৷ নাম দেয়া হয়েছে কোভিড৷ আমি সিঙ্গাপুরে ল্যাবরেটরিতে এই ভাইরাসটি নিজে গ্রো করিয়ে কাছ থেকে দেখেছি, যেটা এই মুহূর্তে ভাবলে ভয় লাগে৷’’

ড. বিজন কুমার বলেন, ‘‘যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে৷ অন্যদিকে আরো অনেক দেশ কিট উৎপাদনের জন্য এই কাঁচামাল চায়৷ তাই চাহিদা অনেক৷ তবে আমরা কাঁচামাল পাচ্ছি এটাই আশার কথা৷’’
তিনি জানান, ‘‘করোনা ভাইরাস এখন আমাদের পরিবেশে ‘অ্যাডাপ্টেশন’ পর্যায়ে আছে৷ তবে আমাদের তাপমাত্রাও বাড়ছে৷ বেশি তাপমাত্রায় ভাইরাসটি বেশিক্ষণ টিকতে পারে না৷ আক্রান্ত কেউ খুব কাছে থেকে হাঁচি বা কাশি না দিলে এটা ছড়ায় না৷ খুব দূরে ভাইরাসটি যায় না৷ তাই আশা করি, আমরা হয়ত ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে পারব৷’’

ড. বিজন কুমার বলেন, ‘‘আমাদের আতঙ্ক কাটিয়ে উঠতে হবে৷ মানুষকে আশ্বস্ত করতে হবে৷ আমার আবিস্কৃত এই কিট যদি মানুষের উপকারে লাগে, আমি খুশি হবো৷ আমার জন্ম স্বার্থক হবে৷’’

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভেটেনারি মেডিসিনে মাস্টার্স করা বিজন কুমার ডক্টরেট করেছেন ইংল্যান্ডের সারে ইউনিভার্সিটি থেকে, ১৯৯১ সালে৷ সেখানে ১০ বছর কাজ ছ ২০০২ সাল থেকে তিনি সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল এনভায়রনমেন্ট এজেন্সিতে কাজ শুরু করেন৷ সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি ভাইরোলজি বিভাগে চেয়ারম্যান হিসেবে যোগ দেন তিনি৷ গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালের প্রধান ও বিজ্ঞানী। উনার স্ত্রীও একজন ভেটেনারি ডাক্তার৷

সংবাদটি শেয়ার করতে নিচের অপশনে ক্লিক করুন

More News Of This Category



Our Facebook Page


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু